আজকের ইনফো https://www.ajkerinfo.com/2022/08/bank-account-for-freelancing.html

ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য ব্যাংক একাউন্ট ভালো কোনটি ?


বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং এর চাহিদা অনেক বেশি ,অনেকেই চাকরি ছেড়ে ফ্রিল্যান্সিং এর দিকে ঝুঁকে পড়ছে। অবশ্য একটি ভালো সিদ্ধান্ত কেননা এই পেশায় কোন বাধা ছাড়াই ইচ্ছামত টাকা ইনকাম করা যায় ।ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজ বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে করতে হয় ।

ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য ব্যাংক একাউন্ট ভালো কোনটি ?


তাই ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলো থেকে টাকা তোলার জন্য ,বিভিন্ন ধরনের পেমেন্ট গেটওয়ে বা ইন্টারন্যাশনাল ট্রানজেকশন ব্যবহার করে  করতে হয় ।এক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য ব্যাংক একাউন্ট কোনটি ভালো ,কোনটি রেমিটেন্স দেয় ,কোন ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করলে ডলার এক্সচেঞ্জ রেট বেশি পাওয়া ;চলুন আজকে এগুলো নিয়ে বিস্তারিত জানা যাক।

সূচিপত্রঃ ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য ব্যাংক একাউন্ট ভালো কোনটি ?

ফ্রিল্যান্সিং এর টাকা পাওয়ার বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম কোনটি

ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য ব্যাংক একাউন্ট ভালো কোনটি ?

ইন্টারন্যাশনাল মার্কেট অনেকগুলো রয়েছে ,যেখানে মানুষজন ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা ইনকাম করে। তবে জনপ্রিয় কিছু মাধ্যম আছে যেগুলোতে সচরাচর সবাই কাজ করে থাকে ।সে জনপ্রিয় দুটি সাইট সম্পর্কে বলি একটি হলো fiverr আরেকটা হল upwork  ।এদুটি মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য বাংলাদেশ সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম পেওনিয়ার একাউন্ট (Payoneer) ।

কেননা আমরা সকলে জানি আমাদের সকলের কাঙ্খিত পেপাল একাউন্ট বাংলাদেশ সাপোর্ট করে না। বাংলাদেশে পেপাল নেই তাই আমাদেরকে ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেসে কাজ করার ক্ষেত্রে পেওনিয়ার অথবা wise ,airtm ,zoom ইত্যাদি বিশ্বস্ত ট্রানজেকশন মাধ্যম গুলো ব্যবহার করা হয়।

ফাইবার থেকে টাকা উত্তোলন

ফাইবার থেকে টাকা উত্তোলন


ফাইবার থেকে টাকা উত্তোলনের ক্ষেত্রে পেওনিয়ার ছাড়া বাংলাদেশিদের জন্য অন্য উপায় নাই বললেই চলে ।আপনার যদি ভেরিফাইড পেপাল থাকে তাহলে তো আরো ভালো ।তবে পেপাল একাউন্ট ভেরিফাইড না হলে ,আপনি যদি সে পেপাল একাউন্ট ফাইবার সাথে কানেক্ট করে টাকা উত্তোলন করেন ;সেক্ষেত্রে যখন তখন আপনার অ্যাকাউন্ট ব্লক হয়ে যেতে পারে। 

সুতরাং পেপাল একাউন্ট ব্যবহার না করাই ভালো ,তবে আপনার যদি ভেরিফাইড পেপাল অ্যাকাউন্ট থেকে অবশ্য ব্যবহার করতে পারেন।ফাইবার থেকে পেনের একাউন্টে টাকা উত্তোলনের ক্ষেত্রে প্রতি উত্তোলনে আপনার কাছ থেকে 3 ডলার করে কেটে নিবে ।এবং পেওনিয়ার ডলার রেট 84 থেকে 85 পেয়ে যাবেন । 


তবে আপনি যদি সরাসরি ব্যাংকে উইথড্র করেন তাহলে আপনার টাকাটি পুরোপুরি পাবেন ।আর যদি বিকাশের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করেন সেক্ষেত্রে ডলার রেট একটু বেশি হলেও ,আপনাকে বিকাশ থেকে টাকা উত্তোলন করতে অবশ্যই ক্যাশ আউট চার্জ বহন করতে হবে।

আপওয়ার্ক থেকে টাকা উত্তোলন

আপওয়ার্ক থেকে টাকা উত্তোলন

আপওয়ার্ক থেকে টাকা উত্তোলনের ক্ষেত্রে আপনাকে যে পেওনিয়ার একাউন্ট থেকে টাকা তুলতে হবে এমন কোন কথা নেই ।আপনি চাইলে পেওনিয়ার একাউন্ট থেকে টাকা তুলতে পারবেন অথবা সরাসরি আপনার ব্যাংক একাউন্ট ,ভেরিফাইড ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে সরাসরি টাকা তুলতে পারবেন।


এক্ষেত্রে পেওনার ডলার ট্রানজেকশন ফি 1 ডলার কেটে নিবে এবং পেওনিয়ার 3 ডলার ।সুতরাং টোটাল আপনার 4 ডলার কেটে যাবে ।ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে শুধুমাত্র আপনার 1 ডলার কাটবে বাকিটা পুরোপুরি আপনি পেয়ে যাবেন,

ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য ব্যাংক একাউন্ট ভালো কনটি? 

ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য ব্যাংক একাউন্ট ভালো কোনটি ?


আমরা এতক্ষণ ফ্রিল্যান্সিংয়ের টাকা উত্তোলন কিভাবে করতে হয় কোন কোন ট্রানজেকশন এর মাধ্যমে তা জানলাম ।এখন সবার মনে প্রশ্ন থাকে যে ,আসলে বাংলাদেশ তো অনেক ব্যাংক রয়েছে ।কোন ব্যাংক অ্যাড করলে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা উত্তোলনের ক্ষেত্রে বেশি পরিমাণে ডলার রেট পাওয়া, যায় কেননা সবাই চায় টাকা একটু বেশি পেতে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক ব্যবহার করে থাকেন ,এক্ষেত্রে বলব আপনি যদি ব্যাংকে টাকা উইথড্র দেন তাহলে অবশ্যই আপনার 3 থেকে 7 দিন পর্যন্ত সময় লাগতে পারে ।আর ডাচ বাংলা ব্যাংক আপনাকে আপনার উপার্জিত অর্থের উপর কোন রেমিটেন্স দেয় না।

আপনি যদি ব্র্যাক ব্যাংক ,ইসলামী ব্যাংক এইসব ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করেন বা এসব ব্যাংক আপনার ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেসে যোগ করে থাকেন,সেক্ষেত্রে এ ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করলে আপনি রেমিট্যান্স বোনাস পাবেন ।অর্থাৎ আপনার যে ডলার থাকবে সেই অর্থের উপর আপনি রেমিটেন্স পারসেন্টেন্স পাবেন এটি অবশ্য অনেক ভালো।

ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য পেওনিয়ার অ্যাকাউন্ট কেন ভালো

ফ্রিল্যান্সিং এর জন্যে পেওনিয়ার এই জন্যই ভালো কারণ এখানে আপনি গ্লোবাল ট্রানজেকশন করতে পারবেন ।এবং পেমেন্ট রিকুয়েস্ট আপনার ক্লায়েন্টকে পাঠাতে পারবেন ।অর্থাৎ মার্কেটপ্লেস এর বাইরে আপনি কাজ করার পরে কোন ক্লায়েন্টের কাছ থেকে সরাসরি পেমেন্ট রিকুয়েস্ট পাঠিয়ে ডলার পেওনিয়ার একাউন্ট নিতে পারবেন ।


অন্যান্য ট্রানজেকশন যেমন wise, zoom, airtm এগুলো এই সুবিধাটি পাবেন না ।যদিও পেওনিয়ার ডলার রেট একটু কম দিয়ে থাকে তবুও এটি অনেক ক্ষেত্রেই সুবিধাজনক ।এটির আপনি মাস্টার কার্ড অর্ডার করতে পারবেন যা দিয়ে আপনি সরাসরি যেকোনো ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। বিভিন্ন কেনাকাটা করতে পারবেন ।

তবে পেওনিয়ার এর মাধ্যমে সর্বনিম্ন 100 ডলার উইথড্র করলে আপনি পেওনিয়ার মাস্টার কার্ডে অর্ডার করতে পারবেন, তাছাড়া পারবেন না।

গুরুত্বপূর্ণ কথা

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা উত্তোলনের ক্ষেত্রে সব সময় নির্ভরযোগ্য কোনো ট্রানজেকশন মাধ্যম ব্যবহার করুন ।আপনি আপনার একাউন্ট ইনফর্মেশন ভুল করে অন্য কাউকে দিবেন না বা কেউ যদি আপনাকে ডলারের বেশি দিতে চাই ,এবং আপনার একাউন্ট ইনফরমেশন চাই, তাহলে আপনি তাকে অবশ্যই দিবেন না ।

সবকিছু দেওয়ার পূর্বে অবশ্যই যাচাই-বাছাই করে নেবেন ।ডলার রেট একেকটি ব্যাংকের একেক রকম হয়ে থাকে। সুতরাং সবকিছু জেনে আপনার জন্য যেটি সুবিধা হবে ,সেই ব্যাংকে আপনি ফিলান্সিং এর টাকা উত্তোলন করতে পারেন।



পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?