দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় - ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ কত

প্রিয় পাঠক আপনারা নিশ্চয়ই দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানতেই আজকের পোস্টটিতে এসেছেন। আমাদের বিভিন্ন কারণে দাঁত ফাঁকা হয়ে যেতে পারে অর্থাৎ দাঁতের মাঝখানে ফাঁক দেখা দিতে পারে। আর এজন্য অনেকেই দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে জানতে চাই। তাদের জন্য আজকের পোস্টটিতে আমরা দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় ও দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরার চেষ্টা করব।
পোস্টসূচিপত্রঃআপনি যদি দাঁত ফাঁকা দূর করার বিস্তারিত উপায় সম্পর্কে জানতে তাহলে আজকের পোস্টটি মনোযোগ সহকারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন। তাহলে আপনি দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন।

ভূমিকা

আপনারা অনেকেই দাঁতের সমস্যায় ভোগে থাকি। বিশেষ করে দাঁতের মাঝখানে ফাঁক এই সমস্যাটি বেশি হয়ে থাকে। এটি বিভিন্ন কারণে হতে পারে। খাবার খাওয়ার উপরে নির্ভর করে হতে পারে। বিশেষ করে আপনি কিভাবে খাবার খাচ্ছেন তার ওপরও নির্ভর করে দাঁতের ফাঁকা হবে কিনা। তবে আপনারা এই দাঁত ফাঁকা দূর করতে পারবেন অনায়াসেই। 

যা জানতে আপনারা আজকের এই পোস্টটিতে এসেছেন। আপনারা মধ্যে অনেকেই দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন যা আমরা আজকের পোস্টটিতে বিস্তারিত আলোচনা করব। তাই শেষ পর্যন্ত দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানতে পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায়

প্রিয় বন্ধুরা আপনাদের কাঙ্ক্ষিত প্রশ্নের উত্তরে চলে এসেছেন। যে আপনারা দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানতে চান। তাই আপনি যদি দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে এই অংশটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন। চলুন আর কথা না বাড়িয়ে জেনে নেওয়া যাক দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় কি।
  • আমরা অনেক সময় বিভিন্ন ধরনের খাবার খেয়ে থাকি যে খাবারগুলো দাঁতের মাঝখানে অনেক সময় আটকে থাকে যার ফলে সেই আটকে যাওয়া খাবার এসিডে পরিণত হয়। যার ফলে আমাদের দাঁতের মাঝখানে ফাঁক দেখা যায়। এজন্য আপনাদের খাবার খাওয়ার পর অবশ্যই দাঁত ব্রাশ করতে হবে।
  • আপনারা ঘরোয়া উপায় হিসেবে যেকোনো ধরনের খাবার খাওয়ার পর ক্ষার জাতীয় পেস্ট ব্যবহার করবেন ।যেটি আপনার দাঁতের এসিড বিক্রিয়া ঘটিয়ে লবন ও পানি উৎপন্ন করবে যার ফলে এসিড বিক্রিয়ার এর মাধ্যমে দাঁতের ফাঁকা বন্ধ করা যায়। এখানে মূলত এই ক্ষার জাতীয় পেস্ট দাঁতের মাঝখানে লেগে থাকা বিভিন্ন ধরনের খাবারের টুকরো বিক্রিয়া করে লবন ও পানি উৎপন্ন করে। আমরা সাধারণত রসায়নের ভাষায় এই বিক্রিয়াকে প্রশমন বিক্রিয়া বলা হয়।
  • আপনারা খাবার খাওয়ার পরে দাঁত ফাঁকা দূর করতে ডেন্টাল ফ্লোস ব্যবহার করতে পারেন। এটি মূলত একপ্রকার প্লাস্টিকের সুতোর মতো। যেটি দাঁতের মাঝখানে লেগে থাকা খাবারগুলো বের করে আনে এবং দাঁতের মাঝখানে পরিষ্কার রাখে যার ফলে তাদের দাঁতের মাঝখানে ফাঁক হওয়া সমস্যা দূর হয়।
  • তাছাড়া আপনি দাঁতের ফাঁকা দূর করতে রাবার ব্যান্ড ব্যবহার করতে পারেন। যেটি প্রত্যেক রাতে আপনি দাঁতগুলোকে বেঁধে রেখে দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন। এখানে মূলত দুটি দাঁতের মাঝখানে দাঁত দুটিকে রাবার দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। যার ফলে দাঁতের ফাঁকা দূর হয়ে যায়।
আশা করছি আপনারা দাঁতের ফাঁকা দূর করার কিছু ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে গেলেন। এর ফলে আপনারা ঘরে বসে দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন। চলুন আমরা এবার জেনে নেই ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ সম্পর্কে।

ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ কত

আপনার হয়তো ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ সম্পর্কে জানতেই আজকের এই অংশটিতে এসেছেন। আমরা এই অংশে ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ কত এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করব। এটি মূলত নির্ভর করে আপনি কোন চিকিৎসকের নিকট দাঁতের ফাঁকা দূর করছেন এবং কোন পদ্ধতিতে দাঁতের ফাঁকা দূর করবেন তার উপর নির্ভর করে। চলুন আমরা নিম্নে ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ গুলো জেনে নেই।

অর্থদনটিক ব্রেসেস চিকিৎসা

এই পদ্ধতিতে অতি সহজেই দাঁতের ফাঁকা দূর করা যায়। আপনাদের মধ্যে অনেকেই আছে এই পদ্ধতিতে দাঁতের ফাঁকা দূর করে থাকেন। তবে এই পদ্ধতিতে অন্যান্য দাঁতের ফাঁকা দূর করার পদ্ধতি খরচ থেকে এই পদ্ধতিতে একটু খরচ বেশি হয়ে থাকে। এই পদ্ধতিতে আপনারা দাঁতের আকাবাকা এবং দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন। 
সাধারণত এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে দাঁতের আকাবাকা ও দাঁতের ফাঁকা দূর করতে সময় লাগে ৬ মাস অথবা এক বছর সময় লাগতে পারে। এই পদ্ধতিতে যদি আপনি দাঁতের চিকিৎসা করাতে চান তাহলে আপনার খরচ পড়বে সাধারণত কমপক্ষে ৪০ হাজার থেকে ৭০ হাজার পর্যন্ত। তবে এটি পরিবর্তনশীল বিভিন্ন ডাক্তার বিভিন্ন রকম চার্জ করে থাকে।

লাইট কিউর কম্পোজিট ভিনিয়ার

আপনি যদি এই কম্পোজিট ভিনিয়ার পদ্ধতিতে দাঁতের ফাঁকা দূর করার চিকিৎসা করান তাহলে অতি সহজেই কম সময়ে এবং কম খরচে চিকিৎসা করাতে পারবেন। এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে সাধারণত অনেক কম সময় লাগে তবে সর্বোচ্চ ১ ঘন্টা পর্যন্ত লাগতে পারে। এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে যদি আপনি দাঁতের ফাঁকা দূর করতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে মিনিমাম ৩০০০ থেকে ৬০০০ টাকা পর্যন্ত। 

এক্ষেত্রে আপনি একটি দাঁতের জন্য ১৫০০ টাকা খরচ পড়বে এবং যদি আপনি তিনটি দাঁতের ফাঁকা দূর করতে চান তাহলে খরচ পড়বে ৪৫০০ টাকা। এছাড়া বিভিন্ন চার্জ দিয়ে আরো খরচ করতে পারে। তবে এটি বিভিন্ন ডেন্টিস্ট বিভিন্ন রকম খরচ নিয়ে থাকে।

পোরসেলিন ক্যাপ পদ্ধতি

এ পদ্ধতিতেও আপনি দাঁতের চিকিৎসা করাতে পারবেন। এই পদ্ধতিতে একটি দাঁতের ক্যাপ পড়াতে খরচ হয় ১৫০০-২০০০ টাকা পর্যন্ত। তবে আপনি যদি খুব উন্নত মানের ক্যাপ পড়াতে চান তাহলে সেটি খরচ হবে আনুমানিক ৩০০০-৪০০০ পর্যন্ত। তবে খরচ গুলো বিভিন্ন ডেন্টিসের কাছে বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে। তাই খরচ পরিবর্তনশীল।

সামনের দাঁত ফাঁকা হলে কি হয়

আপনার অনেকে আছেন যারা আমাদের কাছে প্রশ্ন করে সামনের দাঁত ফাঁকা হলে কি হয়। এ সম্পর্কে আমরা আজকের এই অংশটিতে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করব। চলুন আর কথা না বাড়িয়ে এবার জেনে আসি সামনের দাঁত ফাঁকা হলে কি হয়।
আমাদের মধ্যে অনেকে আছে যাদের দাঁত ফাকা রয়েছে তাদের অনেক ক্ষেত্রেই সামনের দাঁত ফাঁকা থাকার ফলে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হয়। বিশেষ করে তারা জনসম্মুখে হাসি দিতে লজ্জা পায়। তাছাড়াও তাদের মুখ থেকে থুথু ছেঁটে। যার ফলে সামনে থাকা লোকটি সমস্যা বোধ মনে করতে পারে। চলনে এবার জেনে নেই সামনের দাঁত ফাঁকা থাকলে কি কি হয়।
  • যেসব ব্যক্তিদের সামনে দুই দাঁতের মাঝখানে ফাঁকা রয়েছে তারা সাধারণত আত্মবিশ্বাসী এবং অধিক সাহসী হয়ে থাকে।
  • এ ধরনের লোক গুলো সাধারণত কর্মজীবনে অধিক সফলতা অর্জন করে। কারণ তাদের রয়েছে দৃঢ় আত্মবিশ্বাস ও কাজ করার ক্ষমতা।
  • তা ছাড়াও এ ধরনের মানুষগুলো তাদের কাজগুলো গুছিয়ে করার চেষ্টা করে। তারা সবসময় পরিপাটি হয়ে চলাচল করে। যার ফলে সমাজে তাদের সম্মান বেড়ে যায়।
  • দাঁতের ফাঁক রয়েছে এ ধরনের মানুষগুলো অন্যান্য মানুষ থেকে আলাদা হয়ে থাকে এবং অনেক বুদ্ধিমান হয়ে থাকে। তারা গুছিয়ে কথা বলতে পছন্দ করে।
  • তাছাড়াও যাদের দাঁতের মাঝখানে ফাঁকা রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে অনেকই চিন্তা ভাবনা না করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে এবং অনেক বুদ্ধি খাটিয়ে কথাবার্তা বলে।
  • এ ধরনের মানুষগুলো অনেকটা লজ্জাশীল হয়ে থাকে। সামনের দাঁত ফাকা থাকার কারণে তারা অনেক সময় কথা বলতে একটু লজ্জা পায়।

দাঁত ফাঁকা কেন হয়

আপনারা হয়তো এতক্ষণে দাঁত ফাকা দূর করার বিভিন্ন উপায় জানতে পারলেন। তবে আপনাদের এখন অবশ্যই দাঁত ফাঁকা কেন হয় এ সম্পর্কে জেনে রাখা ভালো। যার ফলে আপনি অতি সহজেই দাঁতের ফাঁকা হওয়া থেকে দাঁতকে রক্ষা করতে পারবেন। তাই চলুন আর কথা না বাড়ি এবার জেনে নেই দাঁত ফাঁকা কেন হয়।দাঁত ফাঁকা সাধারণত বিভিন্ন কারণে হতে পারে। তবে অন্যতম কারণ হলো জেনেটিক অর্থাৎ বংশগত ভাবে এটি হতে পারে। তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বংশগত কারণে সামনের দাঁত ফাঁকা দেখা যায়। তবে যে শুধু জেনেটিক কারণে দাঁত ফাঁকা হয় এটি নয়। 
আরো বিভিন্ন কারণে দাঁতের মাঝখানে ফাঁক দেখা যায়। আপনারা যদি খাবার খাওয়ার পর সঠিকভাবে দাঁতের যত্ন না নেন তাহলে দাঁতের মাঝখানে ফাঁকা দেখা দিতে পারে। আমাদের খাওয়া খাবার গুলো এই দাঁতের মাঝখানে আটকে থাকে এবং সেগুলো পচে এসিডে পরিণত হয় যার ফলে দাঁতের মাঝখানে দেখা যায়। এছাড়াও অনেকেই আছে যারা খাবার খাওয়ার পর দাঁত কাঠি দিয়ে খুঁজিয়ে থাকেন যার ফলে অনেক সময় দাঁতের মাঝখানে ফাঁকা হয়ে যায়। তাই আপনারা কখনোই কাঠি দিয়ে দাঁত খোঁচাবেন যাবেন না।

দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণ ও প্রতিকার

প্রিয় বন্ধুরা আপনারা কি দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে জানতে ইচ্ছুক। আমরা এই অংশটিতে দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে আলোচনা করব। চলুন আর কথা না বাড়িয়ে এবার জেনে যাওয়া যাক দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণ ও প্রতিকার গুলো কি কি।

দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণ

  • দাঁত ফাঁকা হওয়ার অন্যতম কারণ হলো মুখে দাঁত কম থাকা। আমাদের মধ্যে অনেকে আছে যাদের স্বাভাবিক দাঁতের সংখ্যা থেকে অনেক সময় কম থাকে। যার ফলে তাদের দাঁতের মাঝখানে ফাঁক দেখা যায়। স্বাভাবিক দাঁতের সংখ্যা চেয়ে কম থাকলে দাঁতের মাঝখানে ফাঁক দেখা যায় এবং দাঁত ফাঁকা হয়ে যায়।
  • আপনারা বিভিন্ন সময়ে দাঁতের সমস্যাই দাঁত তুলে ফেলেন যার ফলে সেই স্থানে ফাঁকা দেখা যায় এবং তাদের মাঝখানে ফাঁক এর সৃষ্টি হয়। এর ফলে দাঁত ফাঁকা হয়ে যায়। অর্থাৎ বলা যায় দাঁতের সমস্যার কারণে যদি দাঁত উপরে ফেলা যায় তাহলে সে স্থানে দাঁতের ফাঁকের সৃষ্টি হয় যা আমরা দাঁত ফাঁকা নামে জানি।
  • তাছাড়াও আপনি যদি প্রয়োজন ছাড়া অধিক সময় ধরে দাঁত ব্রাশ করেন তাহলে দাঁতের মাঝখানে ফাঁকা দেখা দিতে পারে। তাছাড়া অনেকে আছে দিনে অনেকবার দাঁত ব্রাশ করেন তাদের ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি হতে পারে। তাদের দাঁতের মাঝখানে ফাঁকা হতে পারে।
  • আমাদের মত অনেকে আছে যারা খাবার খাওয়ার পর দাঁত কাঠি দিয়ে খিলাল করে। যার ফলে দাঁতের মাঝে ফাঁকা হয়ে যায়। এটা একটি মারাত্মক বদঅভ্যাস। এর ফলে দাঁত ফাঁকা হয়ে যায়।
  • এছাড়াও দাঁতের বিভিন্ন ধরনের অসুখ দেখা দিলে দাঁত ফাঁকা হয়ে যেতে পারে। এটি হতে পারে দাঁতের ক্ষয় হওয়া যার ফলে দাঁত ফাঁকা হয়ে যায়।
  • তাছাড়াও দাঁতের চোয়ালে আঘাত লাগলে অনেক সময় দেখা যায় দাঁতের গোড়ায় চোয়াল নরম হয়ে যাওয়ায় দাঁতের মাঝখানে ফাঁকা হয়ে যায়। এর ফলে দাঁতের ফাঁকা দেখা দেয়।
  • এছাড়া অনেকের ছোট আকৃতির দাঁত রয়েছে যার ফলে দাঁতের মাঝে ফাঁকা দেখা যায় এটি অন্যতম কারণ দাঁত ফাঁকা হওয়ার।
  • অনেকেরই আছে হাড়ের অসুখ যার ফলে দাঁত ফাঁকা হয়ে যায় অনেক সময়। এ সময় ক্যালসিয়াম জাতীয় খাবার খাওয়া খুবই প্রয়োজন হাড়ের পুষ্টির জন্য।

দাঁত ফাঁকা প্রতিকার

এতক্ষণে আপনারা হয়তো জেনে গেছেন কি কি কারণে দাঁত ফাঁকা হয়ে যায় অর্থাৎ দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণগুলো ভালোভাবে জানলেন। তবে এই দাঁত ফাঁকা হওয়ার প্রতিকার কি সেগুলো আমরা এবার জেনে নিই। চলুন আর কথা না বাড়ি এবার জেনে নেই দাঁত ফাঁকা প্রতিকার কি ।

অর্থডনটিক চিকিৎসাঃ আপনার দাঁতে যদি ফাঁকা দেখা যায় এবং দাঁত আকাবাকা হয় অথবা দাঁতের স্থান সোজা না হওয়া ইত্যাদি সহ বিভিন্ন কারণে আপনি এই পদ্ধতিতে চিকিৎসা করে দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন। অনেক সময় দাঁত উঁচু হয়ে যায় এটিও আপনি এই পদ্ধতিতে চিকিৎসা করাতে পারবেন। তাছাড়াও দুটি দাঁতের মাঝখানে অনেক সময় দূরত্ব বেড়ে যায় এর থেকেও আপনি এই চিকিৎসার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। তাই বলা যায় এই অর্থডনটিক চিকিৎসা পদ্ধতিতে আপনি দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন।

পার্সেল ইন ক্রাউনঃ এটি সাধারণত এক ধরনের ক্যাপ যেটি দাঁতে বসানো হয়। যার ফলে দাঁতের ফাঁকা অনেকটা দূর হয়ে যায়। দাঁতের ফাঁকা দূর করতে আপনারা এই পার্সেল ইন ক্রাউন চিকিৎসা পদ্ধতিতে দাঁতে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আনতে পারেন। এই পদ্ধতিতে আপনি দাঁতের ফাঁকসহ দাঁতের স্বাভাবিক অবস্থান ঠিক রেখে অনায়াসে তাদের ফাঁকা দূর করতে পারবেন।

দাঁত ফাঁকা দূর করার উপায় - দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায়

আপনারা নিশ্চয়ই দাঁত ফাঁকা দূর করার উপায় অংশটি পড়তেই এতক্ষণ অপেক্ষা করেছেন। আমরা এই অংশে দাঁত ফাঁকা দূর করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব যার মাধ্যমে আপনি দাঁত ফাঁকা দূর করতে পারবেন। চলুন আমরা এবার জেনে নিই দাঁত ফাঁকা দূর করার উপায় ও নিয়ম।
  • আমরা সাধারণত বিভিন্ন ধরনের খাবার খেয়ে থাকি যেগুলো অনেক সময় আমাদের দাঁতের মাঝে আটকে যায়। এর ফলে ওই খাবারগুলো অনেক সময় ধরে আটকে থাকায় পচে এসিডে পরিণত হয়ে। যার ফলে দাঁত ফাঁকা হয়ে যায়। আপনাদের অবশ্যই খাবার খাওয়ার পর ব্রাশ করা উচিত। তবে সবসময় নয় বিশেষ করে রাতের বেলা ব্রাশ করে শোয়া উচিত এবং যে খাবার গুলো দাঁতের ফাঁকে আটকে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে সেটি খাওয়ার পরে অবশ্যই ব্রাশ করা উচিত।
  • এছাড়াও খাবার গ্রহণ করার পর আপনারা ডেন্টাল ফ্লোস ব্যবহার করতে পারেন। এটি আপনার দাঁতের মাঝখানে লেগে থাকা খাবারগুলো পরিষ্কার করে। এতে সাধারণত এক ধরনের প্লাস্টিকের সুতা যার মাধ্যমে আপনি দাঁতের মাঝখানে থাকা খাবার পরিষ্কার করতে পারবেন।
  • বর্তমানে দাঁত পরিষ্কার করার জন্য এক প্রকার ডেন্টিস্ট এর এক প্রকার তরল পদার্থ পাওয়া যায় যেটি খাবার খাওয়ার পর ওই তরল পানি দিয়ে কুলি করলে দাঁতের মাঝখান থেকে সকল খাবার পরিষ্কার হয়ে যায়।
  • আপনারা দাঁতের মাঝখানের ফাঁকা দূর করতে রাবার ব্যান্ড ব্যবহার করতে পারেন। বিশেষ করে রাতে ঘুমানোর আগে এই রাবার ব্যান্ড দিয়ে দুই দাঁতের মাঝখানে ফাঁকা দূর করতে দুই দাঁতের সাথে সংযুক্ত করে বেঁধে রাখতে হবে। এর ফলে আপনারা দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন।
  • আমরা সকলেই জানি দাঁতের মাঝখানে আটকে থাকা খাবারগুলো অনেক সময় থাকার পর তা এসিডে পরিণত হয়। তাই আপনারা ক্ষার জাতীয় পেস্ট ব্যবহার করুন। যেটি আপনার দাঁতে ফাঁকা খাবার এসিডে পরিণত হওয়ার ফলে ওই এসিডের সাথে ক্ষার জাতীয় পেস্টের প্রশমন বিক্রিয়ায় লবণ ও পানি তৈরি করবে যার ফলে দাঁত পরিষ্কার হয়ে যাবে এবং তাদের ফাঁকা দূর হবে।
তাহলে আশা করছি আপনারা দাঁত ফাঁকা দূর করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এর ফলে আপনারা অতি সহজেই দাঁতের ফাঁকা অনায়াসে দূর করতে পারবেন। এছাড়াও চিকিৎসা পদ্ধতিতে তাদের ফাঁকা দূর করা সম্ভব যা আমরা উপরে আলোচনা করেছি।

ফাঁকা দাঁত সমান করার উপায়

আপনারা কি জানেন ফাঁকা দাঁত সমান করার উপায়। যদি না জেনে থাকেন তাহলে আমরা এখন ফাঁকা দাঁত সমান করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। আপনার দাঁত যদি আঁকাবাঁকা হয়ে যায়, দাঁতের মাঝে ফাঁকা দেখা যায় , দাঁত উঁচু নিচু হয় ও তাদের স্বাভাবিক অবস্থান দেখা যায় না এসব সমস্যা সহ দাঁতের ফাঁকা দূর করতে আপনারা অর্থডনটিক চিকিৎসা পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। এর মাধ্যমে অতি সহজেই দাঁতের ফাঁকা এবং দাঁতের স্বাভাবিক অবস্থান ফিরিয়ে আনতে পারবেন। 
দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায়
তাছাড়া দাঁতের ফাঁকা সমান করতে পারবেন। এ ছাড়া আরেকটি পদ্ধতিতে সেটি হল পার্সেল ইন ক্রাউন পদ্ধতি যেটি ব্যবহার করে আপনারা দাঁতের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আনতে পারবেন এবং দাঁতের ফাঁকা সমান করতে পারবেন অর্থাৎ ফাঁকা দাঁত সমান করা যায়। এই পদ্ধতিতে সাধারণত দাঁতে ক্যাপ পড়ানো হয়।

সামনের ফাঁকা দাঁত ঠিক করার উপায়

আপনাদের মধ্যে অনেকেরই আছে যাদের সামনের দাঁত ফাঁকা হয়ে যায়। তবে তারা সামনের দাঁত ফাঁকা ঠিক করতে চায়। যার ফলে তারা সামনের ফাঁকা দাঁত ঠিক করার উপায় সম্পর্কে জানতে চায়। তাদের জন্যই আমরা এই অংশে সামনের ফাঁকা দাঁত ঠিক করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। আপনি যদি সামনে দাঁত ফাঁকা ঠিক করতে চান তাহলে বিভিন্ন চিকিৎসা পদ্ধতিতে সামনের দাঁতের ফাঁকা ঠিক করতে পারবেন। বর্তমানে অনেক আধুনিক চিকিৎসা বের হয়েছে যার মাধ্যমে আপনি তাদের ফাঁকা সহ দাঁতের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করতে পারবেন। এবার আমরা সামনের দাঁত ফাঁকা ঠিক করার চিকিৎসা পদ্ধতিগুলো জেনে নেই।
  • অর্থোডন্টিক চিকিৎসা
  • লাইট কিউর কম্পোজিট ফিলিং
  • বন্ডিং চিকিৎসা
  • পার্সেল ইন ক্রাউন
উক্ত চিকিৎসা পদ্ধতি গুলোর মাধ্যমে আপনারা অতি সহজেই সামনের দাঁত ফাঁকা ঠিক করতে পারবেন। এই পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত আমরা উপরে জেনে এসেছি। তাই উপরের অংশ থেকে ভালোভাবে দেখে নিবেন।

শেষ কথা

আশা করছি আপনারা হয়তো এতক্ষণে দাঁত ফাকা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে গেছেন। এছাড়া আরও দাঁতের সমস্যায় তথ্যগুলো জানলেন যার ফলে আপনারা এখন দাঁতের ফাঁকা অতি সহজেই বিভিন্ন আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতির মাধ্যমে দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন। এছাড়াও কিছু ঘরোয়া পদ্ধতিতে দাঁতের ফাঁকা প্রতিরোধ করা সম্ভব অর্থাৎ প্রতিকার করা সম্ভব। তাছাড়াও ঘরোয়া পদ্ধতিতে আপনারা দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারবেন যা আমরা এই পোস্টে জেনে এসেছি। আশা করছি ভাল লেগেছে। অন্যদের দাঁতের ফাঁকা দূর করার সম্পর্কে জানাতে পোস্টটি শেয়ার করুন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

আজকের ইনফো নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url